শনিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২২ ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৭ই জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি
  1. অর্থনীতি
  2. সারাদেশ
  3. Privacy Policy
  4. Terms Of Use
  5. Contact Us
শিরোনাম:

ওয়ানডেতে বাংলাদেশের ১৫তম অধিনায়ক লিটন

বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশ হচ্ছে, জনসমাগম নেই, মাঠ ফাঁকা : ওবায়দুল কাদের

মেসি খেলতে নামছেন হাজারতম ম্যাচ

দুর্ভিক্ষের আগে দুর্বৃত্ত সরকারকে বিদায় দিতে হবে : ভিপি নুর

আগামীকাল প্রধানমন্ত্রীর জনসভাকে ঘিরে উৎসবমুখর চট্টগ্রাম

সুখের খাবার সুস্বাদু কটকটি

Author
Arnold
১০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২:৫৫ অপরাহ্ণ

Link Copied!

“ কটকটি  “ বগুড়া তথা উত্তরবঙ্গের   মানুষের  জনপ্রিয় একটি খাবার । এটি একটি মুখরোচক খাবার । সাধারণত  বর্গাকৃতির  মিষ্টিগুঁড় দিয়ে মাখানো থাকে । বগুড়ার দইয়ের মতোই পর্যটকদের মাধ্যমে এ খাবারের খ্যাতি ছড়িয়ে পড়েছে দেশের সীমানা ছাড়িয়ে বিদেশেও। শুরুতে এই কটকটির স্বাদ কেবল মহাস্থানেই পাওয়া যেত । এখনও মহাস্থানের কটকটি হিসাবেই পরিচিত । সমগ্র বগুড়াতেই এখন ফেরি করে কটকটি বিক্রয় করতে দেখা যায় । বাংলার প্রাচীন রাজধানী পুণ্ড্রবর্ধন বা মহাস্থানগড় ঘুরতে এসে এই কটকটির স্বাদ নিতে হুমড়ি খেয়ে পড়েন দেশি-বিদেশি পর্যটক ও দর্শনার্থীরা। প্রায় দেড় শ বছর ধরে ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে মহাস্থানগড়ের এই কটকটি।

কটকটি তৈরি হয় কয়েক ধাপে। এর প্রধান উপকরণ সিদ্ধ সুগন্ধি চাল। চাল পানিতে ভিজিয়ে রাখতে হয় দেড় থেকে দুই ঘণ্টা। একেবারে নরম হলে সেই চাল ছেঁকে শুকানোর জন্য রেখে দিতে হয় প্রায় পনেরো মিনিট। পানি শুকিয়ে গেলে ঢেঁকি, মেশিন বা অন্য উপায়ে একেবারে মিহি আটায় রূপান্তর করা হয়। এই আটার সঙ্গে মেশাতে হয় বিভিন্ন মসলা, সয়াবিন তেল। ভালোভাবে মিশিয়ে গাঢ় করে খামির করা হয়। এরপর আকৃতির জন্য আগে থেকে তৈরি করে রাখা ছাঁচ দিয়ে কেটে নিতে হয়। কটকটির আকৃতি সাধারণত এক থেকে দেড় বর্গইঞ্চি হয়ে থাকে। তৈরি হয়ে গেল কাঁচা কটকটি। এবারে ভাজার পালা। বড় বড় কড়াইয়ে ভোজ্য তেল, ঘি-ডালডার সংমিশ্রণে ভাজা হয়। লালচে রং ধরা পর্যন্ত চলে ভাজাভাজির পর্ব। ভাজা হয়ে গেলে গুড় বা চিনির ঘন রসে ভাজা কটকটি ছেড়ে দেওয়া হয়। তারপর ঠাণ্ডা হয়ে গেলেই খাওয়ার উপযোগী হয় স্বাদের কটকটি।

বাড়িতে সাধারণত এই খাবার তৈরী করে দোকানীরা বিক্রয় করে তবে চাহিদা বৃদ্ধি হওয়ায় মহাস্থানগড় এলাকায় ছোট-বড় অনেক কটকটির কারখানা গড়ে উঠেছে সেখান থেকে খুচরা ও ভ্যাম্যমাণ দোকানীরা ঠেলাভ্যান , ঝুড়ি এবং স্থায়ী দোকানের মাধ্যমেও বিক্রি করে বগুড়ার মহাস্থানের এই কটকটি ।  বগুড়া শহরের প্রাণকেন্দ্র  সাতমাথা  সপ্তপদী  মার্কেটের  দক্ষিণ গেটে ভ্যানে করে  কটকটি  বিক্রয় করেন   রেজাউল ; আসেন ১০ কিলোমিটার দূরের কাহালু  থানার শীতলাই গ্রাম  থেকে । সকাল  থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত  তিনি বেচাকেনা করেন । বিক্রি ভালো হলে রাত ০৯-১০ টা পর্যন্তও  তিনি  তার ভ্যান গাড়ীতে কাচ  ঘেরা বক্সে  কটকটি  বিক্রয় করেন । তিনি  দাবী  করেন – মহাস্থানের কারখানা থেকে তিনি প্রতিদিন কটকটি সংগ্রহ করেন , তার বিক্রয় করা কটকটিতে কোন ভেজাল নেই । মানুষ  নাশতা  হিসাবেই  কটকটি  বেশী খায় । রেজাউল বলেন  তিনি গরীব ধনী  সবার কাছেই কটকটি বিক্রি  করেন সর্বনিম্ন ২০ টাকা থেকে শুরু করে ওজন করে  যে কোন পরিমাণ  কটকটি  বিক্রয় করেন ।  দরদাম উপাদানের ভিন্নতার কারণে স্বাদ ও দামেও রয়েছে রকমফের।  রেজাউলের মতো শহর জুড়ে আরোও অনেক কটকটি বিক্রেতা চোখে পড়বে ।  বি.আর.টিাস  বাস ডিপোর সামনে গড়ে উঠেছে একটি স্থায়ী কটকটির দোকান ।

তাদের দেওয়া তথ্য মতে  হাস্থানগড়ের দোকানগুলোতে বর্তমানে তিন ধরনের কটকটি বিক্রি হয়। এর মধ্যে সয়াবিন তেলে ভাজা কটকটি ১২০ টাকা, ডালডায় ভাজা কটকটি ১৫০ টাকা এবং ঘিয়ে ভাজা কটকটি ২০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়।  তাদের দাবী – শহরেও  ঐ একই মানের কটকটি এখন পাওয়া  যায় ।   ১০/০৫  টাকারও  বিক্রয় করা যেত এখন দ্রব্যমূল্যের বৃদ্ধি হওয়াতে পরিবহন খরচ থেকে শুরু করে সব কিছুতে খরচ  বেড়ে  যাওয়ায় আগের মতো আর ০৫  টাকায় বিক্রিয়  করা যায় না । তারপরও  অনেক সময়  পথশিশু কিংবা শহরগামী  শপিং করতে  আশেপাশের থানা-গ্রাম থেকে  আসা ছোট্ট শিশুরা  বাাব-মায়ের সাথে  জিদ  ধরলে অগত্যা  বিভিন্ন দামে বিক্রয় করতে  হয়  মুখের সুখের খাবার সুস্বাদু  কটকটি  ।

আরও পড়ুন

একদিন আগেই ভরে গেছে বিএনপির সমাবেশস্থল

রাজশাহী পৌঁছেই সমাবেশস্থলে হাজির মির্জা ফখরুল

বাইডেন-পুতিন আলোচনায় যে বাধা দেখছে রাশিয়া

রাজশাহী বিভাগীয় সমাবেশে বগুড়ার ৪ হাজার মোটরসাইকেল যোগে নেতাকর্মীরা যাচ্ছেন

গাইবান্ধা উপনির্বাচন নিয়ে ১৩৪ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ইসির শাস্তির সিদ্ধান্ত

জার্মানি-কোস্টারিকা ম্যাচ পরিচালনা করবেন নারী রেফারিরা

সৌদির বিপক্ষে জিতেও গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় মেক্সিকোর

আর্জেন্টিনার কাছে হেরেও শেষ ষোলোতে পোল্যান্ড

বিজয়ের মাস ডিসেম্বর আজ শুরু

বাংলা খবর বিডি ডটকম এর নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

সৈয়দপুর আওয়ামীলীগের দ্বন্দ্ব এখন প্রকাশ্যে! বদলে যাচ্ছে রাজনৈতিক দৃশ্যপট

বাঁচামরার ম্যাচে পোল্যান্ডের মুখোমুখি হচ্ছে আর্জেন্টিনা