শনিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২২ ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৭ই জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি
  1. শিক্ষাঙ্গন
  2. সারাদেশ
  3. Privacy Policy
  4. Terms Of Use
  5. Contact Us
শিরোনাম:

ওয়ানডেতে বাংলাদেশের ১৫তম অধিনায়ক লিটন

বিএনপির বিভাগীয় সমাবেশ হচ্ছে, জনসমাগম নেই, মাঠ ফাঁকা : ওবায়দুল কাদের

মেসি খেলতে নামছেন হাজারতম ম্যাচ

দুর্ভিক্ষের আগে দুর্বৃত্ত সরকারকে বিদায় দিতে হবে : ভিপি নুর

আগামীকাল প্রধানমন্ত্রীর জনসভাকে ঘিরে উৎসবমুখর চট্টগ্রাম

বগুড়া শহরের শিক্ষাব্যবস্থা ও অসম প্রতিযোগীতা : দায় কার ?

Author
হাসান শাব্বীর
১৪ নভেম্বর ২০২২, ১২:৩৭ অপরাহ্ণ

Link Copied!

বগুড়া শহরের নামি দামি সরকারি ও বেসরকারি স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসাসহ শতাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠছে। এছাড়াও সাধারণ মানের প্রতিষ্ঠানতো রয়েছেই। প্রতিবছর জানুয়ারী মাস আসলেই শুরু হয় ভর্তি যুদ্ধ। তাই সন্তানদের ভর্তির উপয়োগী করে গড়ে তুলতেই বগুড়া শহররে বসবাস করা নাগরিকদের বৃহৎ একটা অংশ বাস করছেন কেবলই সন্তানদের শহুরে আধুনিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পাঠদানের সুযোগ করার জন্য। বগুড়ায় বগুড়া এজন্য উত্তর বঙ্গের শিক্ষানগরী নামেও পরিচিত।

বগুড়াবাসীর জীবন শুরু হয় অনেকটাই যুদ্ধ নিয়ে। বলা যায় সামাজিক, পারিবারিক জীবনে। শিশুদের স্কুলে ভর্তি নিয়ে যুদ্ধের সূচনা। সর্বশেষ চ‚ড়ান্ত যুদ্ধ দেখা দেয় বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তির সময়। গোটা সময়টাই ৪/৫ বছর বয়স থেকে ১৬/১৭ বছর পর্যন্ত মোটামুটি ১০/১১ বৎসর। একটি পারিবারকে টানটান টেনশনের মধ্যে রাখে।

একটি ভালো মানের স্কুল/কলেজে সন্তানের ভর্তি সম্পন্ন হওয়ার পর মা-বাবার চিন্তার বিষয় হয় পরবর্তী ধাপের জন্য অন্য স্কুল/কলেজে ভর্তির চিন্তা। কলেজ পাস করার পর বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তির মধ্য দিয়ে এর অবসান হয়। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির আগ পর্যন্ত এই টেনশন এতটাই বাড়ে যে, তাদের মনে হতে থাকে এই মানবজীবনের কোন মানে নেই।

যদিও বগুড়া জিলা স্কুল ও সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ে সরকারের র্নিদেশনা মোতাবেক লটারীর মাধ্যমে ছাত্র/ ছাত্রী ভর্তি করা হবে। অন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান যেমন বগুড়া ক্যান্টঃ পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ, বিয়াম মডেল স্কুল এন্ড কলেজ, বিয়াম ল্যাব্রটারী স্কুল,আমর্ড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন), বিএফ শাহীন,বগুড়া পুলিশ লাইন স্কুল এন্ড কলেজসহ নামী দামি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রাথমিক বাছায়ের পর শিক্ষার্থীদের লটারীর মাধ্যমে ভর্তি করা হয়।

বগুড়ার একটি উপজেলা থেকে আসমা-হাফিজ দম্পত্তি বগুড়ায় বসবাস করেন তাদের একমাত্র কন্যাকে সরকারী বালিকা বিদ্যালয়ে ভর্তি করাবেন, সুযোগ না পেলে আবারও পরেরবার চেষ্টা করবেন একান্তই না হলে সামর্থ্যরে সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ কোন নামী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে মেয়ের প্রাক-প্রাথমিক/প্রাথমিক শিক্ষাসিঁড়ি শুরু করতে চান।

এজন্য তারা স্বামী-স্ত্রী তাদের গ্রামের সাজানো সংসার ফেলে শহরের কোনরকমের সাদামাটা একটি দু’কামরার ঘর বেছে নিয়েছেন। হাফিজ সাহেব পেশায় উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের প্রভাষক। কর্মক্ষেত্র শহর থেকে ৩০ কিমি দূরে মোটরবাইকে যাতায়াত করেন। মা-মেয়ে সারাদিন এ কোচিং, ঐ গৃহশিক্ষকের বাসায় বিদ্যার্জন করেন।
কিন্তু তাদের শহরে আসতে হলো কেন ? এর জবাব কে দেবেন? নিশ্চয়ই শিক্ষা সংশ্লিষ্ট রাষ্ট্রের নীতিনির্ধারকরা। কিন্তু, এই সহজ প্রশ্ন কি করা যেতে পারে সবাইকে মানসম্মত প্রাথমিক বা প্রাক প্রাথমিক শিক্ষাব্যবস্থা কেবল শহরকেন্দ্রিক কেন? গ্রাম, থানা ও উপজেলা পর্যায়েও সরকারী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান রয়েছে; তারা কি তাহলে মানসম্মত নয়? 

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মান নিয়ে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের মনে সন্দেহের কারণ কী? এসব সন্দেহের কারণেই কী বগুড়ায় সবচেয়ে ভালো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ভর্তিযুদ্ধের সূচনা এবং শিক্ষার সেই গলিপথের মোড়ে মোড়ে কোচিং সেন্টারের মনমাতানো সাইনবোর্ড গড়ে ওঠার কারণও, সরকার তথা রাষ্ট্রের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কর্তাদের পক্ষ থেকে জানাতে হবে।

সেই সাথে জনতার জানতে চাওয়া, ওই সব বিশ্ববিদ্যালয়ের মান সমান নয় কেন? শিক্ষাবাজারে কেবল সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যায়ল, বগুড়া জিলা স্কুল, ক্যান্টঃ পাবলিক স্কুল, বিয়াম মডেল স্কুল কিংবা এপিবিএনই শ্রেষ্ঠ এবং সেখানেই ভর্তিচ্ছুদের চোখ কেন ?

শিক্ষাব্যয়, শিক্ষার মান ও শিক্ষাএলাকা নিয়ন্ত্রণ কেবল সঠিক তদারকিতেই সম্ভব। জেলা শহর বগুড়ার চিত্র বোধ করি সারা দেশেই। এ শহরের স্টেকহোল্ডার যারা রয়েছেন তাদের অনেকেই মনে করে সামনের দিনে আধুনিক বগুড়ার শিক্ষাব্যবস্থা বিনির্মাণে ও সকল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সমমানের শিক্ষামান নিশ্চিতে তদারকি ও যুগোপযোগী সিদ্ধান্ত নেওয়া।

আরও পড়ুন

একদিন আগেই ভরে গেছে বিএনপির সমাবেশস্থল

রাজশাহী পৌঁছেই সমাবেশস্থলে হাজির মির্জা ফখরুল

বাইডেন-পুতিন আলোচনায় যে বাধা দেখছে রাশিয়া

রাজশাহী বিভাগীয় সমাবেশে বগুড়ার ৪ হাজার মোটরসাইকেল যোগে নেতাকর্মীরা যাচ্ছেন

গাইবান্ধা উপনির্বাচন নিয়ে ১৩৪ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ইসির শাস্তির সিদ্ধান্ত

জার্মানি-কোস্টারিকা ম্যাচ পরিচালনা করবেন নারী রেফারিরা

সৌদির বিপক্ষে জিতেও গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় মেক্সিকোর

আর্জেন্টিনার কাছে হেরেও শেষ ষোলোতে পোল্যান্ড

বিজয়ের মাস ডিসেম্বর আজ শুরু

বাংলা খবর বিডি ডটকম এর নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি

সৈয়দপুর আওয়ামীলীগের দ্বন্দ্ব এখন প্রকাশ্যে! বদলে যাচ্ছে রাজনৈতিক দৃশ্যপট

বাঁচামরার ম্যাচে পোল্যান্ডের মুখোমুখি হচ্ছে আর্জেন্টিনা